দিনাজপুর বার্তা ২৪ | Dinajpur Barta 24

ব্রেকিং নিউজ
দিনাজপুরে সিআইডির সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার বক্সীর বিদায়ী সম্বর্ধনা
মোফাচ্ছিলুল মাজেদ জুলাই ১৩, ২০২১, ২:১৪ অপরাহ্ণ | পড়া হয়েছে ৪৯৫ বার |

স্টাফ রিপোর্টার ॥ দিনাজপুরে গতকাল সিআইডির সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার স্বপন কুমার বকশীর বিদায়ী সম্বর্ধনা অনুষ্ঠিত হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অথিতি ছিলেন, দিনাজপুর সিআইডির বিশেষ পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায়।
দিনাজপুর উপশহরে সিআইডির কার্যালয়ে সামাজিক দূরুত্ব বজায় রেখে সংক্ষিপ্ত এ অনুষ্ঠানে সিআইডির পরিদর্শক শামসুল আলমের সঞ্চালনে পুলিশ পরিদর্শক মোঃ আল ইমরান, পুলিশ পরিদর্শক রমজান আলী, এস আই মোঃ রুকুনুজ্জামান, এস আই চন্দন কুমার রায়, এ এস আই বজলুর হুদা সরকার, এ এস আই মশিউর রহমান বক্তব্য রাখেন। এ সময় স্বপন কুমার বকশীর সহধর্মীনি তৃপ্তি রানী বকশী, বড় পুত্র ইঞ্জিনিয়ার সুজয় কুমার বক্সী ও ছোট পুত্র রাহুল কুমার বক্সী উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি বিশেষ পুলিশ সুপার পঙ্কজ চন্দ্র রায় কোন বিদায়কে কষ্টদায়ক হিসেবে না নিয়ে আনন্দময় হিসেবে গ্রহন করার আহ্বান জানিয়ে বলেন, স্বপন কুমার বক্সী ৩৫ বছর চাকরী করে সুনামের সাথে এ প্রতিষ্ঠান থেকে বিদায় নিচ্ছে। উনি ভাগ্যবান। তিনি দীর্ঘ চাকুরী জীবনে সুনামের সাথে চাকরী করে বিদায় নিলেন। এটাই হলো তার জীবনের সবচেয়ে বড় পাওনা। বিদায়ী সিনিয়র পুলিশ সুপার স্বপন কুমার বক্সী কান্নাজরিত কন্ঠে বলেন, বিদায়ী শব্দটি খুব কষ্টের। তবুও যেতে হবে এটাই চিরাচরিত নিয়ম। তবে যে চাকরী আমি করেছি এখান থেকে মানুষের সেবা করার অনেক সুযোগ আছে। আমি চেষ্টা করেছি আইনকে সঠিকভাবে বাস্তবায়ন করে মানুষের সেবা করার। সবায় যেন সঠিক বিচার পায় কেউ যেন হয়রানি না হতে হয়। অবসর জীবন মানুষের সেবায় কাটাবো। স্বপন কুমার বক্সী চাকুরী জীবনে কৃতিত্বের জন্য সরকারি ভাবে ২৯ টি পদক পান। চাকুরী জীবনে তার কোন ব্যর্থতা নেই। তার একমাত্র কন্যা তিথি রানী বক্সীর স্বামী কুমার জিৎ রায় বহু জাতিক টেক্সটাইলে চাকুরীরত। তার চাকুরী জীবনে যবনিকা ঘটলো ২৫/০৬/২০২১।
উল্লেখ স্বপন কুমার বক্সী ১৯৮৭ সালে ১০ জানুয়ারি এস আই হিসেবে পুলিশে যোগদান করেন। এরপর তিনি ১৯৯৯ সালে পুলিশ পরিদর্শক ও ২০১৫ সালে সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে পদোন্নতি পান। তিনি ২০১০-১১ ও ২০১৮-১৯ সালে জাতিসংঘে কাজ করেন। স্বপন কুমার বক্সী গাইবান্ধা জেলার সাদুল্লাহপুর থানার দামদরপুর গ্রামের মনিভূষন বক্সীর দ্বিতীয় পুত্র। তার বড় ভাই মানব কুমার বক্সী, ছোট ভাই তপন কুমার বক্সী ও রতন কুমার বক্সী। দুই বোন চৈতালি রানী বক্সী ও কণিকা রানী বক্সী। সম্ভ্রান্ত পরিবারের সন্তান স্বপন কুমার বক্সী। অবসর জীবনে মানব সেবা করে নিজের জীবনকে উৎসর্গ করতে চান।

এই পাতার আরো খবর -
২রা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ
দিনাজপুর, বাংলাদেশ
ওয়াক্তসময়
সুবহে সাদিকভোর ৫:৩০ পূর্বাহ্ণ
সূর্যোদয়ভোর ৬:৪৯ পূর্বাহ্ণ
যোহরদুপুর ১২:১৯ অপরাহ্ণ
আছরবিকাল ৪:১৩ অপরাহ্ণ
মাগরিবসন্ধ্যা ৫:৫০ অপরাহ্ণ
এশা রাত ৭:০৮ অপরাহ্ণ
সর্বশেষ
সর্বাধিক পঠিত
সম্পাদকীয়